Norway

গাইড লাইনঃ নরওয়ে মাস্টার্স পড়াশুনা

নরওয়েতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তি নেয় শুধু আগস্ট সেশনে। বলে নেই , নরওয়েতে স্নাতক পর্যায়ে আবেদন করার সুযোগ নাই। মাস্টার্স আবেদন করতে হয় এর আগের বছর অক্টোবর-নভেম্বরের মধ্যে। কিছু বিশ্ববিদ্যালয় ব্যতিক্রম আছেঃ university of stavanger যারা জানুয়ারীতে আবেদন গ্রহণ করে(২০১৯)।

পূর্ব প্রস্তুতিঃ
১। সার্টিফিকেট এবং আনুশাংঘিক কাগজপত্র যেমনঃ recommendation letter, work experience certificate,transcript তৈরি করে রাখতে হবে। যারা december/january/february তে পাশ করবেন তারা partial transcript দিয়ে আবেদন করতে পারেন।
Transcript attest না করলেও হয় তবে করে রাখা ভালো, সব দেশেই কাজে দেবে।
২. পাসপোর্ট!!!!! ২ বছরের মেয়াদ না থাকলে পাসপোর্ট নবায়ন করে নেয়া উচিত।
৩. IELTS দেয়া থাকলে দেখুন মেয়াদ আছে কিনা আর না দেয়া থাকলে অতি সত্তর দেবার ব্যবস্থা করুন। ঢাকাতে সিট্ খালি না থাকলে ঢাকার বাহিরে হলেও পরীক্ষা দিন। IELTS ছাড়া আবেদন করার চিন্তাও করবেন না! মিনিমাম IELTS ৬.৫ থাকা উচিত

২ বছরের মাস্টার্স আবেদনপর্ব
১। প্রথমেই ভিসিট করুন www.studyinnorway.no ।
২। পছন্দমত বিষয় ও বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচন করুন এবং আবেদনের জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে দেখে নিন।
৩। আবেদন করতে হবে ঃ https://fsweb.no/soknadsweb/velgInstitusjon.jsf
আপনি চাইলে একই বিশ্ববিদ্যালয়ে একাধিক বিষয়ে আবেদন করতে পারেন কিন্তু আপনার ১ম পছন্দ অনুযায়ী ডাক পাবেন।
৪। দরকারি কাগজপত্র জমা দিন এবং সুখবরের জন্য অপেক্ষা করতে থাকুন!
৫। অনেক বিশ্ববিদ্যালয় আবেদনের সময় ব্যাংক স্টেটমেন্ট চায়, একটা অ্যাকাউন্টে কয়েকদিন রেখে জমা দিবেন। ব্যাল্যান্স ১৩লাখ। স্টেটমেন্ট দেয়ার পর অই টাকা আগের একাউন্টে নিয়ে যেতে পারবেন।

মাস্টার্স আবেদনপ্রক্রিয়া শেষ হয় মার্চে। আপনাকে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবে এপ্রিলের মধ্যে ।

টিউশন ফি/বৃত্তি?
নরওয়েতে কোন টিউশন ফি নাই। তাই কোন বৃত্তি পাওয়া যায় না। তবে সরকার-সরকার চুক্তির মাধ্যমে কিছু বৃত্তি রয়েছে, সেটা আরেকদিন।
থাকার খরচ
১নক=৯.৮০/১০ টাকা। বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব মতে আপনার প্রতি মাসে খরচ হবে ৮০০০-৯০০০ নক। কিন্তু ৫৫০০-৬০০০ এর মধ্যে আমাদের আরামসে হয়ে যায়।
পার্ট-টাইম চাকরি
একেক শহরে চাহিদা অনুযায়ী চাকরি। ছোট শহর গুলোতে চাকরি পাওয়া একটু কষ্টকর। তবে সুন্দর সিভি বানিয়ে রেস্তেরা গুলোতে ঘুরলে চাকরি পেয়ে যেতে পারেন। বেশিরভাগ ছাত্র রেস্তেরাতেই কাজ করে থাকেন। IT ছাত্ররা IT জব ও পেয়ে যায়। শুরুতে অনেক ঘুরতে হবে, তবে একবার চাকরি পেয়ে গেলেই কেল্লা ফতে!! পার্ট-টাইম কাজ করেই মাসে ১০০০০ নক কামানো যায়।
বলে নেয়া ভাল, এক সপ্তাহে ম্যাক্সিমাম ২০ ঘণ্টা কাজ করতে পারবেন। এর বেশি করলে UDI নোটিশ পাঠিয়ে দেবে। সর্বনিম্ন আয় ১৫৭/ঘণ্টা।

 

Samiul Ehsan Chowdhury
Stavanger, Norway
Masters Student at university of Stavanger