Finland

ফিনল্যান্ড

ফিনল্যান্ড উত্তর ইউরোপীয় একটি ধনী রাষ্ট্র। এর প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে সুইডেন, নরওয়ে, রাশিয়া। দেশটি অসম্ভব সুন্দর এবং শীত প্রধান দেশ। পৃথিবীর সুখী দেশ গুলোর তালিকায় ফিনল্যান্ড সবসময়ই প্রথম সারিতে থাকে।

শিক্ষা ব্যাবস্থা : ফিনল্যান্ডের শিক্ষা ব্যাবস্থা খুবই উন্নত। পৃথিবীর প্রথম সারির দেশ গুলোর একটি। আপনি এই দেশের ভার্সিটি গুলো থেকে ব্যাচেলর, মাস্টার্স বা পিএইচডি করতে পারেন। ফিনল্যান্ডের ভার্সিটি গুলো সাধারণ তিন বছরের ব্যাচেলর কোর্স অফার করে এবং মাস্টার্সের জন্য দুই বছর। আপনি ইন্জিনিয়ারিং, বিজনেস, আর্টস সহ আরো নানা ধরনের বিষয়ে উপর উচ্চতর শিক্ষা নিতে পারবেন।

আবেদনের সময়: নভেম্বরের শেষ থেকে জানুয়ারির মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন। তবে কিছু কোর্সের জন্য আবেদনের সময় ভিন্ন। আবেদন করার জন্য নিচের লিঙ্ক টি ব্যাবহার করতে হবে। বিস্তারিত সেখানেই পাবেন।
লিঙ্ক: https://studyinfo.fi/wp2/en/

* ব্যাচেলরে ভর্তির জন্য এডমিশন টেস্ট দিতে হবে।
* IELTS ছাড়াও হয়তো কিছু ভার্সিটি এডমিশন লেটার অফার করতে পারে এবং ভিসাও পেয়ে যাবেন হয়তো। IELTS এ ৬.৫ থাকলে সব ভার্সিটিতে আবেদনের যোগ্য আপনি।
* মাস্টার্সের জন্য ব্যাচেলরে ৬৫-৭০% স্কোর থাকা ভাল।

টিউশন ফি : ২০১৭ সাল পর্যন্ত ফিনল্যান্ডের ভার্সিটি গুলোতে পড়ালেখা সম্পূর্ণ ফ্রি ছিলো কিন্তু এরপর থেকে টিউশন ফি নেয়া শুরু করেছে। ভার্সিটি ভেদে টিউশন ফি কম বা বেশি হতে পারে। তবে সাধারণত টিউশন ফি ৮০০০ – ১৬০০০ € মধ্যে হয়ে থাকে।

স্কলারশিপ : ফিনল্যান্ডের প্রায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় নানান ধরনের স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। বিশেষ করে টিউশন ফির উপর। আপনার একাডেমি রেজাল্টর উপর ভিত্তি করে ভার্সিটি আপনাকে ৫০-১০০% পর্যন্ত টিউশন ফি মাপ করতে পারে এমন কি প্রতি মাসে কিছু টাকাও দিতে পারে।

পার্ট-টাইম জব: ফিনল্যান্ড শীত প্রধান দেশ। তাই সবসময়ই যে কাজ পাবেন এমনটা নয়। পার্ট-টাইম জব করে টিউশন ফি দিতে পারবেন না। প্রতি সপ্তাহে ২৫ ঘন্টা কাজ করতে পারবেন। আর ছুটিতে ফুল টাউম কাজ করতে পারবেন। প্রতি ঘন্টায় কাজের জন্য ৯-১৩ € করে পারবে। এখন নিজেই হিসেব করেন কেমন কি ইনকাম করতে পারবেন।

পারমানেন্ট রেসিডেন্স : পারমানেন্ট রেসিডেন্স হবার জন্য আপনাকে নিজের বিষয় ভিত্তিক জব করতেই হবে এমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই। আপনি চাইলে যে কোন রিগাল জব দিয়েই এপ্লাই করতে পারবেন তবে সেলারী অব্যশই প্রতি মাসে 1260 ইউরো অথবা বেশি হতে হবে।। আর এই কন্ডিশন পড়ালেখা শেষ করে ওয়ার্ক পারমিট এ যাওয়া + 4 বছর পর পারমানেন্ট হওয়ার উভয় ক্ষেত্রে একই।

ভিসা : ফিনল্যান্ড এমবাসি বাংলাদেশে নেই। যার জন্য আপনাকে ভারতে যেতে হবে। আবেদন ফি ৩৬০ €। যদি আপনি টিউশন ফি দিতে না হয় তবে আপনার ব্যাংক একাউন্টে ৬৭২০.০০ € দেখাতে হবে আর যি টিউশন ফি দিতে হয় তবে এর সাথে টিউশন ফি এমাউন্টও দেখাতে হবে। টাকাটা কোথা থেকে এসেছে সেটারও ডকুমেন্টস লাগবে।

Mohaiminul Islam
Research Assistant (RA) at School of Intelligent Technology and Engineering