Bangladesh Bank Viva অভিজ্ঞতা- একটু অন্য রকম

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক অফিসার জেনারেল পদে নিয়্যগ পরীক্ষার রিটেনের রেজাল্ট দিয়েছে। যারা উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদেরকে অভিনন্দন। উত্তীর্ণদের অনেকেই ইতোমধ্যে আমার কাছে ভাইবার জন্য কিভাবে প্রিপারেশন নিবেন তা জানতে চেয়েছেন। এ বিষয়ে খুব শীঘ্রই পোস্ট লিখবো। তবে আজ পূণরায় আমার বাংলাদেশ ব্যাংক এডি এর ভাইবা অভিজ্ঞতা আবার শেয়ার করছি

✅ চাকুরি হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংক এডি কখোনই আমার টার্গেট ছিলনা। আইএফআইসি ব্যাংক লিঃ এর মোবাইল ব্যাংকিং ডিভিশনে সেলস এর প্রধান হিসেবে চাকুরি আমি Enjoy করছিলাম। তাই বাংলাদেশ ব্যাংকে ভাইবা দেয়ার আগে বিন্দু পরিমাণ প্রস্তুতি ছিলনা। কোন ধরনের প্রিপারেশন ছাড়াই ভাইবা বোর্ডে প্রবেশ করি। যেহেতু ভাইবার ব্যাপারে কোন প্রিপারেশন ছিলনা তাই মনে মনে ফন্দি এটেছিলাম যদি সুযোগ পাই তবে, বোর্ডের কাউকে Theoritical & Recent General Knowledge এর প্রশ্ন করতে দিবনা।

সালাম দিয়ে প্রবেশের পর স্যার বসতে বললেন। সাথে সাথে স্যার জিজ্ঞাসা প্রশ্ন করে ফেললেন (রাজী হাসান স্যার-ডেপুটি গভর্নর)

স্যার: Are you working anywhere?
আমি: Yes Sir. I am working as Head of Sales & Distribution at IFIC Mobile Banking Division.

স্যার: ‍So, you are doing a very good job. Why do you want to join in Bangladesh Bank??? (এটাই ছিল আমার জন্য সুযোগ)

আমি: Yes, Sir. I am looking the sales of IFIC mobile banking in Bangladesh. I am enjoying the responsibilities. I hope if I join in Bangladesh Bank, the authority will assign me greater responsibilities. But I am facing problems to do my current job.

(এই বলেই আমি থেমে যাই। স্বাভাবিকভাবে স্যারের প্রশ্নটি obvious ছিল 😛 )

স্যার: What are those problems? (এইটার প্রতিক্ষায় ই ছিলাম)

আমি আমার কাজের Ins & Out খুটিয়ে খুটিয়ে স্যারদের জানালাম।ওনারাও মন্ত্রমুগ্ধের মত শুনেছিলেন। কারণ, মোবাইল ব্যাংকিং এর খুটি নাটি তাদের জানা ছিলনা। এই প্রশ্নের উত্তরে আমার শেষ কথাটি ছিল, “Telecommunication companies are trying to make mobile banking a failure project in Bangladesh”. স্বভাবতই, এর পরের প্রশ্ন স্যার করলেন তবে বাংলায়

স্যার: কিভাবে??!!!
আমি: আবারো মোবাইল ব্যাংকিং এর কমিশন Structure এবং ব্যাংকগুলোকে Telecommunication companies এর অসহোযোগিতার কথাগুলো তুলে ধরলাম। তবে শেষ করার আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের Payment System Department এর প্রশংসা করলাম। (কারণ তখন আমি Payment System Department এর সাথে Closely কাজ করি 😉 )

স্যার: What are the things that Payment System Department has done?
আমি: আমি আবার নিজের মত করে বললাম। আমার কথায় রেমিটেন্স শব্দটি এসেছিল।

স্যারঃ তিনটি কারণ বলুন যেভাবে বাংলাদেশে ফরেন রেমিট্যান্স আসে। (একটি মাত্র প্রশ্ন পুরো ভাইবাতে স্যার নিজ থেকে করেছিলেন। )
আমি: তিনটি উপায় বললাম, ওয়েজ আর্নার রেমিট্যান্স, বৈদেশিক বিনিয়োগ, রপ্তানি।

স্যারঃ আপনি কি মডেলিং করেন না কি?
আমিঃ না স্যার।

স্যারঃ চেহারাটা পরিচিত মনে হয়, না কি? (অন্যদের দিকে তাকিয়ে)
অতঃপর স্যার আমাকে ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় করলেন। আমি ভাইবা বোর্ডে প্রায় ১২-১৪ মিনিট ছিলাম কিন্তু রাজী হাসান (সাবেক ডেপুটি গভর্নর) স্যার ছাড়া আমাকে কেউ কোন প্রশ্ন করেনি। আমাকে যদি একটি Theoritical & Recent General Knowledge এর প্রশ্ন করতো, তাহলে নিশ্চিত উত্তর দিতে পারতাম না। 😑 এই জন্যই চেষ্টা চালিয়েছিলাম যাতে এই ধরনের কোন প্রশ্ন না করতে পারে। যাই হোক আল্লহর রহমতে সফল হয়েছিলাম।

ভাইবার টিপস এন্ড ট্রিকস নিয়ে খুব শীঘ্রই একটি পোস্ট লিখবো ইনশাআল্লাহ। 🙂
#learn_today_lead_tomorrow

শুভকামনায়
হাসানুল পান্না শাকিল
উপ পরিচালক
বাংলাদেশ ব্যাংক

5/5 (1)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *